শিরোনাম

ঈদযাত্রার প্রথম দিনেই ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয়

ঈদযাত্রার প্রথম দিনেই ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয়

নিউজ ডেস্ক: ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয়ের মধ্য দিয়ে শুরু হলো ঈদে ঘরমুখী যাত্রীদের আনুষ্ঠানিক রেলযাত্রা। রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে গতকাল বেশ কয়েকটি ট্রেন ছেড়েছে নির্ধারিত সময়ের অনেক পর। এমনকি নির্ধারিত সময়ের সোয়া ৭ ঘণ্টা পর ট্রেন ছাড়ারও ঘটনা ঘটেছে। এর ফলে ব্যাপক ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে যাত্রীদের।

ছুটির দিন হওয়ায় কমলাপুর রেলস্টেশনে গতকাল ঘরমুখী যাত্রীর চাপ ছিল এমনিতেই অনেক বেশি। উপরন্তু ট্রেনের দেখা নেই। ভিড় আর গরমের মধ্যে ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করতে করতে যাত্রীদের বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠতে দেখা গেছে বারবার।

কমলাপুর রেলস্টেশনের কর্মকর্তারা জানান, বৃহস্পতিবার রংপুর যাওয়ার সময় ঝড়ের কবলে পড়ে রংপুর এক্সপ্রেসের যাত্রা ২ ঘণ্টা পিছিয়ে পড়ে। পরে বঙ্গবন্ধু সেতুতে একটি বগি বিকল হয়ে আরো ৩ ঘণ্টা দেরি হয়ে যায়। এছাড়া বঙ্গবন্ধু সেতুর লাইনেও কিছু সমস্যা ছিল। সকালে তাই ধীরে চলতে হয়েছে। উত্তরবঙ্গগামী কয়েকটি ট্রেন ঢাকা এসেছে দেরি করে। তাই ছাড়তেও দেরি হয়েছে।

কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে ঢাকা-রংপুর রুটের রংপুর এক্সপ্রেস ছাড়ার কথা ছিল সকাল ৯টায়। যদিও এ ট্রেন স্টেশনে এসে পৌঁছায় বেলা ২টায়। নির্ধারিত সময়ের ৭ ঘণ্টা ১৫ মিনিট পর বিকাল সোয়া ৪টায় যাত্রীদের নিয়ে কমলাপুর থেকে রওনা দেয় ট্রেনটি। সকাল ৬টার ধূমকেতু এক্সপ্রেস ছেড়েছে সোয়া ৮টায়। সকাল ৮টার নীলসাগর এক্সপ্রেস কমলাপুর ছেড়েছে সকাল সাড়ে ১০টায়। এছাড়া রাজশাহীগামী ধূমকেতু এক্সপ্রেস সোয়া ২ ঘণ্টা, খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ১ ঘণ্টা ১০ মিনিট, চিলাহাটীগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট, কিশোরগঞ্জগামী কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস ১ ঘণ্টা এবং সিলেটগামী জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস আধা ঘণ্টা দেরি করে স্টেশন ছেড়ে গেছে। সব মিলিয়ে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে গতকাল নির্ধারিত সময় ট্রেন ছেড়েছে ১৬টি। যাত্রা বিলম্বিত হয়েছে আটটির।

ঈদে ঘরমুখী যাত্রীদের খোঁজখবর নিতে গতকাল সকাল সাড়ে ৯টায় কমলাপুর স্টেশনে আসেন রেলপথমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন। এ সময় রেলস্টেশনে অপেক্ষারত তারাকান্দিগামী অগ্নিবীণা এক্সপ্রেস ও পঞ্চগড়গামী একতা এক্সপ্রেসের যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলেন মন্ত্রী।

সার্বিক বিষয়ে রেলপথমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ট্রেনে অতিরিক্ত যাত্রীর ওঠানামা, স্টেশনে আসতে দেরি হওয়াসহ বিভিন্ন কারণে কয়েকটি ট্রেন ছাড়তে দেরি হয়েছে। তবে এটা সূচি বিপর্যয় নয়। এছাড়া আজ থেকে আর কোনো ট্রেন বিলম্বে ছাড়বে না বলে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

ভোগান্তির জন্য যাত্রীদের কাছে ক্ষমা চেয়ে রেলমন্ত্রী বলেন, আগামীকাল (আজ) থেকে আর কোনো ট্রেন বিলম্বে ছাড়বে না। যে কয়টি ট্রেন আজ (গতকাল) দেরি করে ছাড়তে হয়েছে, সেগুলোর দিকে আলাদা নজর দিয়ে নির্ধারিত সময়ে ছাড়ার ব্যবস্থা করা হবে। রংপুর এক্সপ্রেস সোয়া ৭ ঘণ্টা দেরি করেছে। আগামীকাল (আজ) রংপুর থেকে নতুন আরেকটি ট্রেন ছেড়ে এ সময়ের গ্যাপ পূরণ করা হবে।

রেলওয়ে খাতকে আরো উন্নত করার পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে উল্লেখ করে রেলমন্ত্রী বলেন, আমাদের যেসব দুর্বলতা আছে, সেগুলো কাটিয়ে ট্রেনের আরো উন্নতি করা হবে। আগামী কোরবানির ঈদে নতুন করে আরো চারটি ট্রেন যোগ হবে। লালমনিরহাট ও রংপুরকে অগ্রাধিকার দিয়ে ওইসব ট্রেন চালু করা হবে।

সুত্র:বণিক বার্তা, জুন ০১, ২০১৯


About the Author

RailNewsBD
রেল নিউজ বিডি (Rail News BD) বাংলাদেশের রেলের উপর একটি তথ্য ও সংবাদ ভিত্তিক ওয়েব পোর্টাল।