বিশেষ সংবাদ

বিপুল বিনিয়োগ সত্ত্বেও বেড়েছে রানিং টাইম

সুজিত সাহা :গত এক দশকে রেলওয়ে খাতে বিপুল পরিমাণে বিনিয়োগ করেছে সরকার। কিন্তু এর পরও রেলসেবার মান বাড়েনি উপরন্তু রেল দুর্ঘটনার পরিমাণ বেড়েছে অস্বাভাবিক হারে। বেড়েছে শিডিউল বিপর্যয়ের প্রবণতাও। এর সঙ্গে আবার সম্প্রতি রানিং টাইম (প্রারম্ভিক স্টেশন থেকে গন্তব্যে পৌঁছার সময়) বাড়ানো হয়েছে ৫০ শতাংশ ট্রেনের। প্রকল্পের পর প্রকল্প বাস্তবায়নের পরও এভাবে রানিং টাইম বেড়ে যাওয়ার বিষয়টিতে রেলসেবা মানের ক্রমাগত নিম্নমুখিতারই ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। রেলওয়ের সর্বশেষ প্রকাশিত ওয়ার্কিং টাইম টেবিল (ডব্লিউটিটি) অনুযায়ী, পূর্বাঞ্চল রেলওয়ের ৪৬টি আন্তঃনগর ট্রেনের মধ্যে ২১টির রানিং টাইম বাড়ানো হয়েছে। সামান্য কমেছে ১৬টি ট্রেনের রানিং টাইম। অপরিবর্তিত রয়েছে আটটির। অন্যদিকে পশ্চিমাঞ্চল রেলের ৪২টি আন্তঃনগর ট্রেনের মধ্যে রানিং টাইম বেড়েছে ১৮টির। কমেছে ১৪টির। অপরিবর্তিত রয়েছে ১০টির। উভয় অঞ্চলের আন্তঃনগর ট্রেনগুলোর মধ্যে কোনো কোনো ট্রেনের রানিং টাইম সর্বোচ্চ ২ ঘণ্টা পর্যন্ত বেড়েছে। অন্যদিকে রানিং টাইম কমে যাওয়া ট্রেনগুলোর মধ্যে বেশির ভাগের সময় কমেছে মোটে ৫ থেকে ২০ মিনিট। দেশের রেল খাতে বিনিয়োগের মাত্রা বরাবরই ঊর্ধ্বমুখী। ২০০৭-১০ সাল পর্যন্ত রেলওয়ের তিন বছর বিনিয়োগ প্রোগ্রামে বিনিয়োগ হয়েছে ২ হাজার ৯৬৯ কোটি টাকা। এরপর ষষ্ঠ পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় (২০১১-১৫) খাতটিতে বিনিয়োগের লক্ষ্য রাখা হয় ৪৩ হাজার ৫০৯ কোটি টাকা। চলমান সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় (২০১৬-২০) এ লক্ষ্য ধরা হয়েছে ৬৬ হাজার ৩৩৭ কোটি টাকা। বিনিয়োগ ও বিনিয়োগ পরিকল্পনায় বরাদ্দের পরিমাণ ক্রমে বাড়লেও রানিং টাইম বেড়ে যাওয়ার বিষয়টিতে এর কোনো প্রতিফলনই নেই। রেলসংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, বিপুল বিনিয়োগের পরও ব্যবস্থাপনাগত নানা অসংগতি ও দুর্নীতির কারণেই রানিং টাইম বাড়ছে। অন্যদিকে রেলের পরিকল্পনা ও পরিবহন বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বলছেন, রেলের বিভিন্ন ধরনের উন্নয়ন প্রকল্প শেষ হলেও তা সুষম হয়নি। ট্র্যাকের উন্নয়ন করার পাশাপাশি নতুন কোচ আনা হলেও অধিকাংশ ইঞ্জিনই মেয়াদোত্তীর্ণ। এছাড়া সিংহভাগ সেতু, কালভার্ট এখনো জরাজীর্ণ। স্টেশন বন্ধ থাকায় কাঙ্ক্ষিত গতি পাচ্ছে না ট্রেনগুলো। এসব কারণে সেকশন অনুযায়ী ট্রেন চালানোর সক্ষমতা কমে যাওয়ায় ট্রেনের রানিং টাইম কমানো সম্ভব হচ্ছে না। রেলওয়ের সর্বশেষ টাইম টেবিল বাস্তবায়ন হয়েছে চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি। এর আগের টাইম টেবিলটি বাস্তবায়ন করা হয়েছিল ২০১৭ সালের ১ মার্চ। প্রতি বছর সময়সূচি পুনর্নির্ধারণ করে নতুন টাইম টেবিল বাস্তবায়নের কথা থাকলেও এবার নতুন টাইম টেবিল প্রণয়ন ও বাস্তবায়নে সময় লেগেছে ২ বছর ১০ মাস। এ সময়ে রেলওয়ের একাধিক বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন ছাড়াও নতুন নতুন কোচ সংযোজন, ট্র্যাক সংস্কার, কালভার্ট ও ব্রিজ সংস্কার, নতুন নতুন সেতু নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় রেলের প্রায় প্রতিটি ট্রেনের সময়সূচিতেই রানিং টাইম কমে আসার কথা ছিল। দেশের জনপ্রিয় ও গুরুত্বপূর্ণ রেলরুট ঢাকা-চট্টগ্রাম। যাত্রীদের ঘনত্বও অনেক বেশি রুটটিতে। এখানে প্রথম আন্তঃনগর ট্রেন চালু হয় ১৯৮৫ সালের দিকে। সে সময় এ রুটে যাত্রী চলাচলে সময় লাগত খুবই কম। পরবর্তী সময়ে রেলের বিনিয়োগ ও আধুনিক সুযোগ-সুবিধা বাড়লেও এ রুটে ট্রেনের রানিং টাইমও বেড়েছে। বিভিন্ন সময় কমিয়ে আনার আশ্বাস দিয়েও রানিং টাইম কমাতে পারেনি রেলওয়ে। যদিও এরই মধ্যে ৩২১ কিলোমিটার দীর্ঘ রেল রুটটিতে দুটি ডাবল ট্র্যাকের সেতু (তিতাস ও ভৈরব) নির্মাণ হয়েছে। ডাবল লাইন হয়েছে লাকসাম থেকে চিনকি আস্তানা পর্যন্ত এবং টঙ্গী থেকে ভৈরব বাজার পর্যন্ত রেলপথ। অন্যদিকে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে টঙ্গী পর্যন্ত রেলপথ ডাবল লাইন ছিল আগে থেকেই। এছাড়া এ রুটের পুরনো ট্র্যাকগুলোও সংস্কার করা হয়েছে। তার পরও ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে বিরতিহীন ট্রেনের রানিং টাইম ৫ ঘণ্টার নিচে নামিয়ে আনতে পারেনি রেলওয়ে। বরং সর্বশেষ প্রণীত টাইমটেবিলে বিরতিহীন সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনের রানিং সময় ১০ মিনিট করে বাড়িয়ে ৫ ঘণ্টা ২০ মিনিট করা হয়েছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক নাসির উদ্দিন আহমেদ বণিক বার্তাকে বলেন, রেলের অনেক চলমান প্রকল্প বাস্তবায়নাধীন। ফলে নতুন ট্র্যাক, কোচ ও একাধিক উন্নয়ন হলেও অস্থায়ী গতি নিয়ন্ত্রণাদেশের কারণে ট্রেনের গতি কমে যায়। তাছাড়া ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয়সহ বিভিন্ন কারণে যাত্রীদের ভোগান্তি কমাতে ট্রেনের রানিং সময় বাড়ানো হয়েছে। ট্র্যাক, সেতু, কালভার্টসহ একাধিক প্রকল্প বাস্তবায়ন কাজ শেষ হলে আগামীতে এসব বর্ধিত রানিং টাইম সমন্বয় করা হবে।  সুত্র:বণিক বার্তা, জানুয়ারি ৩১, ২০২০

Read More

নির্মাণকাজে গতি না থাকলেও বাড়ছে ঠিকাদার নিয়োগ ব্যয়

ইসমাইলআলী: খুলনা থেকে মোংলা বন্দর পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণ প্রকল্প নেওয়া হয় ২০১০ সালের ডিসেম্বরে। তিন বছরের মধ্যে তা কাজ শেষ করার কথা থাকলেও ঠিকাদার নিয়োগ হয় ২০১৫ সালের অক্টোবরে। সংশোধিত লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী ২০১৮ সালের জুনে প্রকল্প…


রেলের নতুন শিডিউলে সুন্দরবন এক্সপ্রেসের যাত্রী কমছে

আহমেদ সাঈদ বুলবুল : নতুন শিডিউলের পর খুলনা-ঢাকা রুটে চলাচলকারী জনপ্রিয় আন্তঃনগর ট্রেন সুন্দরবন এক্সপ্রেসের যাত্রীসংখ্যা কমতে শুরু করেছে। নতুন শিডিউলের কারণে এমনটি হচ্ছে বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের (রাজশাহী) সুন্দরবন এক্সপ্রেস…


ট্রেনের টিকিট পাওয়া যায় না, অথচ আসন খালি থাকে: কৃষিমন্ত্রী

কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, ট্রেনে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে হবে। ট্রেনে টিকিট কাটতে গেলে টিকিট পাওয়া যায় না। অনেকে টিকিট না কেটে ভ্রমণ করেন। আবার ট্রেনে আসন খালি থাকছে।আজ মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে বিএনপির সংরক্ষিত আসনের সাংসদ…


ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ পাঁচ যাত্রী কারাগারে

নিউজ ডেস্ক: বঙ্গবন্ধু সেতু এলাকায় রাজশাহী থেকে ঢাকাগামী বনলতা আন্তঃনগর ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ ও বগির জানালার গ্লাস ভাংচুরের ঘটনায় লোকাল ট্রেনের আটক পাঁচ যাত্রীকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাদের সিরাজগঞ্জ কারাগারে পাঠানো…


ফয়’স লেক ইজারা দিয়ে বিপাকে রেলওয়ে

সাইদসবুজ: রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের ২৪ হাজার ৪৪০ একর ভূমির মধ্যে ১৫ হাজার ৩১ একর অপারেশনাল কাজে ব্যবহার করা হয়। আর অবশিষ্ট ৯ হাজার ৪০৯ একর ভূমির মধ্যে বাণিজ্যিক কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে ৪৮৭ একর। এর মধ্যে চট্টগ্রামের…


আন্তঃনগর ৩৫ ট্রেন কাল থেকে চলবে নতুন সূচিতে

নিউজ ডেস্ক: আগামীকাল ১০ জানুয়ারি (শুক্রবার) থেকে সারাদেশে ৩৫টি আন্তঃনগর ট্রেনের সময়সূচিতে পরিবর্তন আসছে। পাশাপাশি বাড়ছে ৯টি ট্রেনের যাত্রা বিরতি। নতুন ট্রেন চালু হওয়ায় রেলের পূর্ব ও পশ্চিমাঞ্চলের ৩৫টি ট্রেনের সময় সূচিতে এই সমন্বয়। এতে…


ট্রেন দুর্ঘটনার বছর

নিউজ ডেস্ক: বিগত বছরগুলোর তুলনায় বিদায়ী বছরে একের পর এক দেশে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটে। অব্যবস্থাপনা, রেললাইন সংস্কারের অভাব ও সিগন্যালিং ব্যবস্থা ভেঙে পড়ায় এসব দুর্ঘটনা ঘটে। ফলে নিরাপদ ভ্রমণের প্রতীক এ বাহনটিও হয়ে ওঠে…


মাঠের কর্মকর্তারা প্রকল্পে, উপেক্ষিত রেলপথ

শিপন হাবীব : রেলে দুর্ঘটনা, বগি লাইনচ্যুতি, সিডিউল বিপর্যয় ইত্যাদি যেন পিছু ছাড়ছে না। উনিশ থেকে বিশ হলেই ঘটছে বিপদ। প্রাণহানির মতো ঘটনাও ঘটছে। অথচ অ্যানালগ থেকে সম্পূর্ণ ডিজিটাল (কম্পিউটারাইজড ও প্যানেল বোর্ড নিয়ন্ত্রিত) হয়েছে…


অবৈধ রেল গেট বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে রিট

নিউজ ডেস্ক: দেশের সব রেল ক্রসিংয়ে গেটম্যান নিয়োগ ও অবৈধ গেট বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে। আজ রবিবার সৈয়দা শাহিন আরা লাইলীর পক্ষে অ্যাডভোকেট একলাস উদ্দিন ভুইয়া জনস্বার্থে রিট দায়ের করেন। বিচারপতি…