যমুনা রেল সেতু কাজ শুরুর আগেই ব্যয় বৃদ্ধি গ্রহণযোগ্য নয়

যমুনা রেল সেতু কাজ শুরুর আগেই ব্যয় বৃদ্ধি গ্রহণযোগ্য নয়

উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থায় বৈপ্লবিক পরিবর্তনের সূচনা করেছে বঙ্গবন্ধু সেতু। সড়ক যোগাযোগের পাশাপাশি রেলসংযোগ রাখা হয় সেতুটিতে। তবে ব্রিজটিতে ফাটল দেখা দেওয়ায় পাশে বিকল্প রেল সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয় কয়েক বছর আগে। সে অনুযায়ী নির্মাণব্যয় নির্ধারণ করে ভূমি অধিগ্রহণসহ বিভিন্ন কাজ সম্পন্ন হয়েছে, তবে মূল সেতুর কাজ এখনও শুরু হয়নি। কিন্তু কাজ শুরুর আগেই মোটা অঙ্কের ব্যয় বাড়ছে প্রকল্পটিতে। কাজ শুরুর আগেই এভাবে ব্যয় বৃদ্ধি গ্রহণযোগ্য নয়। যেকোনো প্রকল্পের ব্যয় যৌক্তিক পর্যায়ে রাখা জরুরি বলে মনে করি।

গতকালের দৈনিক শেয়ার বিজে ‘বঙ্গবন্ধু রেলওয়ে সেতু নির্মাণ: ব্যয় বাড়ছে তিন হাজার ২১৫ কোটি টাকা’ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনের তথ্যমতে, ২০১৬ সালে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলওয়ে সেতু’ নির্মাণ প্রকল্প অনুমোদন দেয় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। তখন ব্যয় ধরা হয়েছিল ৯ হাজার ৭৩৪ কোটি সাত লাখ টাকা। কিন্তু এখন তা বেড়ে দাঁড়াচ্ছে প্রায় ১২ হাজার ৯৫০ কোটি সাত লাখ টাকা। অথচ মূল সেতুর নির্মাণকাজই শুরু হয়নি। ভবিষ্যতে ব্যয় আরও বৃদ্ধির শঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না।

সরকারি প্রকল্পের অর্থ অপচয়ের অভিযোগও দীর্ঘদিনের। এ অর্থ আসে রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে। জনগণের অর্থের ব্যয়ে অস্বচ্ছতা কোনোভাবেই কাম্য নয়। বর্তমানে পদ্মা সেতুসহ বেশকিছু বড় প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়নাধীন। দেশের জন্য প্রকল্পগুলো দারুণ উদ্যোগ নিঃসন্দেহে। কিন্তু এসব প্রকল্পে প্রাক্কলিত ব্যয়ের তুলনায় পরে কয়েক দফা ব্যয় বেড়েছে, সাধারণ মানুষের মধ্যে যা ভালো বার্তা দিচ্ছে না। ভবিষ্যতে এ ধরনের প্রকল্পের ব্যয় নির্ধারণ ও নির্বাহ করার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্টদের আরও সজাগ হওয়া উচিত বলে মনে করি।

খবরেই উল্লেখ করা হয়েছে, বঙ্গবন্ধু রেলওয়ে সেতু নির্মাণে ব্যয় বৃদ্ধির বিষয়টি শর্তসাপেক্ষে অনুমোদন দেওয়ার কথা জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। ব্যয় বৃদ্ধির কারণ হিসেবে কাজের আওতা বাড়ার কথা উল্লেখ করেছেন তিনি। তবে কী ধরনের কাজ বেড়েছে, তা জানাননি। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে এ ধরনের রেলওয়ে সেতুর গুরুত্ব রয়েছে ব্যাপক। কিন্তু ব্যয়ের ব্যাপারেও সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। জনগণের অর্থে পরিচালিত যেকোনো প্রকল্পের ব্যয়ে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করার পাশাপাশি অপচয় বন্ধ করা জরুরি। বড় কোনো প্রকল্প শুরুর আগে সব দিক বিবেচনা করে ব্যয় নির্ধারণ করা প্রয়োজন। এতে পরবর্তীকালে ব্যয় নিয়ে প্রশ্ন ওঠার সুযোগ বন্ধ হবে বলে আমরা মনে করি।

সুত্র:শেয়ার বিজ, জানুয়ারী ১১, ২০২০


About the Author

RailNewsBD
রেল নিউজ বিডি (Rail News BD) বাংলাদেশের রেলের উপর একটি তথ্য ও সংবাদ ভিত্তিক ওয়েব পোর্টাল।