শিরোনাম

৬৫ শতাংশ বেশি দামে ২০০ কোচ কিনবে রেলওয়ে

৬৫ শতাংশ বেশি দামে ২০০ কোচ কিনবে রেলওয়ে

ইসমাইল আলী:
যাত্রী পরিবহন সক্ষমতা বাড়াতে ২০০ ব্রডগেজ কোচ কিনবে রেলওয়ে। ইউরোপিয়ান ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকের (ইআইবি) ঋণে কোচগুলো কেনা হবে। এজন্য উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনা (ডিপিপি) চূড়ান্ত করা হয়েছে। এতে প্রতিটি কোচের দাম পড়ছে ভ্যাট-শুল্ক ছাড়া সাত কোটি ৬২ লাখ টাকা। চলমান প্রকল্পের চেয়ে এ ব্যয় ৬৫ শতাংশ বেশি।

তথ্যমতে, ২০০ ব্রডগেজ কোচ কেনায় ব্যয় ধরা হয়েছে এক হাজার ৮৪৯ কোটি দুই লাখ টাকা। এর মধ্যে এক হাজার ৪৪০ কোটি ৮০ লাখ টাকা ঋণ দেবে ইআইবি। আর ৪০৮ কোটি ২২ লাখ সরকারের তহবিল সরবরাহ করা হবে। এতে প্রতিটি কোচের দাম পড়ছে ভ্যাট-শুল্কসহ প্রায় ৯ কোটি ২৫ লাখ টাকা। আর ভ্যাট ও শুল্ক বাদ দিয়ে প্রতিটি কোচের দাম ধরা হয়েছে সাত কোটি ৬২ লাখ ৩০ হাজার টাকা।
এদিকে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) ঋণে ৫০টি ব্রডগেজ কোচ কিনছে রেলওয়ে। গত বছর জুনে কোচগুলো কেনায় চুক্তি সই করা হয়। এতে কোচপ্রতি ব্যয় পড়ছে শুল্ক-ভ্যাট ছাড়া চার কোটি ৬০ লাখ ৭১ হাজার টাকা। ইন্দোনেশিয়ার ইনকা-পিটি ইন্ডাস্ট্রিজ থেকে কোচগুলো কেনা হচ্ছে। অর্থাৎ বর্তমানে চলমান প্রকল্পের চেয়ে প্রতিটি কোচের দাম বেশি ধরা হয়েছে প্রায় তিন কোটি দুই লাখ টাকা বা ৬৫ দশমিক ৫৫ শতাংশ।

সূত্র জানায়, ২০০ কোচ কেনা প্রকল্পের আওতায় অপ্রয়োজনে ব্যয় বাড়ানো হয়েছে। এক্ষেত্রে প্রকল্পটির আওতায় একটি পাজেরো স্পোর্টস কার ও একটি ডাবল কেবিন পিকআপ কেনার প্রস্তাব রয়েছে। কোচ কেনার সঙ্গে এর কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। এছাড়া বিদেশি প্রশিক্ষণ গ্রহণেও বড় অঙ্কের ব্যয় প্রস্তাব করা হয়েছে।
এদিকে রেলওয়ের জন্য সবচেয়ে বেশি দামে কোচ কেনা হয়েছিল ভারত থেকে। দেশটির ঋণে (এলওসি) কেনা কোচগুলো গত বছর রেলের বহরে যুক্ত হয়। ১২০টি ব্রডগেজ কোচ কেনায় ব্যয় হয়েছিল ৯৭৫ কোটি ৯৭ লাখ টাকা। এতে ভ্যাট-শুল্ক ছাড়া কোচ কেনায় ব্যয় হয় ছয় কোটি ৩৫ লাখ ২৫ হাজার টাকা। ভারতের ঋণে সীমিত দরপত্রে কেনায় কোচগুলোর দাম কিছুটা বেশি পড়ে। তবে এর চেয়ে বেশি ব্যয়ে উš§ুক্ত দরপত্রে ২০০ কোচ কেনার নতুন প্রকল্প নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক মো. আমজাদ হোসেন শেয়ার বিজকে বলেন, ইআইবির ঋণে কেনা কোচগুলোর মধ্যে এক সেট (চারটি) ভিআইপি সেলুন রয়েছে, যা রাষ্ট্রপতি বা প্রধানমন্ত্রীর ভ্রমণের জন্য। বুলেটপ্রুফ এ সেলুনের দাম অনেক বেশি। এছাড়া দুটি ইন্সপেকশন কার ও দুটি সাধারণ সেলুন (মন্ত্রীদের জন্য) কেনা হচ্ছে। এতে গড়ে কোচগুলোর দাম কিছুটা বেশি পড়ছে। এছাড়া বিদ্যমান প্রকল্পের সঙ্গে পাঁচ শতাংশ মূল্যস্ফীতি বিবেচনায় নতুন কোচগুলোর দাম প্রাক্কলন করা হয়েছে।

যদিও রেলওয়ে-সংশ্লিষ্টরা বলছেন ভিন্ন কথা। তাদের মতে, এক সেট ভিআইপি সেলুনের দাম ধরা হয়েছে ৫৪ কোটি ১৭ লাখ টাকা। আর দুটি ইন্সপেকশন কার ও দুটি সাধারণ সেলুনের দাম ৪০ কোটি ৮৬ লাখ টাকা। এগুলো বাদ দিলেও প্রতিটি কোচের গড় মূল্য ধরা হয়েছে ছয় কোটি ৩৫ লাখ টাকা, যা ইন্দোনেশিয়া থেকে কেনা কোচগুলোর চেয়ে এক কোটি ৭৪ লাখ টাকা বা প্রায় ৩৮ শতাংশ বেশি। তাই বাজারমূল্য যাচাই করে কোচগুলোর দাম নির্ধারণ করা উচিত ছিল বলে মনে করেন তারা।

সুত্র:শেয়ার বিজ


About the Author

RailNewsBD
রেল নিউজ বিডি (Rail News BD) বাংলাদেশের রেলের উপর একটি তথ্য ও সংবাদ ভিত্তিক ওয়েব পোর্টাল।