শিরোনাম

জেনে নিন নতুন নিয়মে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটবেন যেভাবে


।। নিউজ ডেস্ক ।।
দূরপাল্লার যে কোনো ভ্রমণে সবাই ট্রেন ব্যবহারেই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। তবে বর্তমানে ট্রেনের টিকিট পাওয়া অত্যন্ত দুঃসাধ্য। লম্বা লাইনে সারাদিন দাঁড়িয়েও অনেক সময় ট্রেনের টিকিট মেলে না। আবার ঈদ ও বিভিন্ন সরকারি ছুটির সময় টিকিট পাওয়া আরও কষ্টকর হয়ে ওঠে। তবে আপনি এখন থেকে খুব সহজেই ঘরে বসে মোবাইল থেকেই ট্রেনের টিকিট বুকিং করতে পারেন।

তবে অনেকেই অনলাইনে ট্রেনের টিকিট সংগ্রহ করার নিয়ম জানেন না। চলুন তবে জেনে নিন বাংলাদেশ রেলওয়ে অনলাইন টিকিট কাটার নিয়ম। আপনি নিজেই আপনার মোবাইল থেকে বিকাশের সাহায্যে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কিনতে পারবেন। বর্তমানে অনলাইনে বাংলাদেশ রেলওয়ে টিকিট বিক্রয়ের জন্য ‘Shohoz-Synesis-Vincen Joint Venture’ এর সঙ্গে চুক্তি করেছে আগামী ৫ বছরের জন্য। তাই এখন থেকে ‘সহজ’ ট্রেন টিকিট বিক্রির কার্যক্রম পরিচালনা করবে।

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়মঅনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য eticket.railway.gov.bd ওয়েবসাইটে নাম, ই-মেইল ও মোবাইল নম্বর দিয়ে অ্যাকাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করুন। এরপর প্রোফাইলের তথ্য আপডেট করুন। আপনার স্টেশন ও গন্তব্য অনুযায়ী নির্দিষ্ট তারিখের ট্রেন সার্চ করুন। সবশেষে আসন বাছাই করে অনলাইনে পেমেন্ট করে টিকিট বুকিং কনফার্ম করুন। ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার উপায় জানুন-

➤ প্রথমে অ্যাকাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করুন। এজন্য আপনার মোবাইল ফোন বা কম্পিউটার থেকে গুগল ক্রোম ব্রাউজার থেকে ভিজিট করুন ওয়েবসাইট ‘Bangladesh Railway E-Ticketing Service’ এ। বাংলাদেশ রেলওয়ের ওয়েবসাইটে আপনার মোবাইল নম্বর ও ই-মেইল দিয়ে রেজিস্ট্রেশন বা সাইন আপ করতে হবে। রেজিস্ট্রেশনের জন্য উপরের ডান পাশ থেকে Register বাটনে ক্লিক করুন। একটি ফর্ম আসবে। সেখানে আপনি ইংরেজিতে আপনার নাম, ই-মেইল, ফোন নম্বর ও ৮ অঙ্কের একটি পাসওয়ার্ড দেবেন।

➤ এরপর জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা জন্ম নিবন্ধন দিতে হবে। এজন্য Identification Type অপশনে Dropdown অপশন থেকে বাছাই করুন। আপনার National ID Number বা Birth Registration নাম্বার লিখুন। আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র এখনো হাতে না পেলে অনলাইন থেকে জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করতে পারেন। এরপর আপনার পোস্টকোড এবং নিচে ঠিকানা লিখুন। সব তথ্য অবশ্যই ইংরেজিতে লিখবেন। এখন ওয়েবসাইটের বাংলা ভার্সন প্রস্তুত হয়নি।

➤ এবার আপনার মোবাইলে ৬ ডিজিটের একটি ভেরিফিকেশন কোড পাঠানো হবে। সেটি দিয়ে ভেরিফাই করতে বলা হবে। আপনার মোবাইলে আসা কোডটি ৪৫ সেকেন্ডের মধ্যে সঠিকভাবে লিখে Continue বাটনে ক্লিক করুন। অ্যাকাউন্টটি প্রাথমিকভাবে চালু হয়ে যাবে।

➤ এরপর প্রোফাইলে লগইন হয়ে যাবে। লগইন না হলে বা ভবিষ্যতে পুনরায় টিকিট কিনতে এ ওয়েবসাইটে ফিরে আসবেন এবং উপরের ডান পাশ থেকে Login মেন্যুতে ক্লিক করুন। রেজিস্ট্রেশনের সময় আপনি যে মোবাইল নাম্বার ও পাসওয়ার্ড দিয়েছিলেন, তা দিয়েই লগইন করুন।

প্রোফাইল আপডেট করা শেষে ওয়েবসাইটের Home পেজে ফিরে যান। আপনি কোন স্টেশন থেকে রওনা হবেন আর কোন স্টেশনে নামবেন সেই অনুসারে ট্রেন সার্চ করুন। From-আপনি যে স্টেশন থেকে ট্রেনে উঠবেন বাছাই করুন ও TO-তে আপনি যে স্টেশনে নামবেন তা বাছাই করুন।

এরপর Date of Journey থেকে আপনার ভ্রমণের তারিখ বাছাই করুন। Choose Class-এর অপশনগুলো পূরণ করে হলুদ রঙের Find বাটনে ক্লিক করুন। এরপর আপনার বাছাই করা তারিখের সব ট্রেন দেখানো হবে। এখান থেকে ট্রেন ছাড়ার সময় অনুসারে আপনার পছন্দমতো ট্রেন থেকে টিকিট কাটার জন্য সিলেক্ট করুন।

➤ এবার আপনার যাত্রার সময় ও আসনের ধরন অনুসারে পছন্দমতো ট্রেন ও সিট বাছাই করুন। এজন্য পছন্দের ট্রেনের আসন খালি থাকা সাপেক্ষে View Seats বাটনে ক্লিক করে সিট বুকিং দিন। এরপর CONTINUE PURCHASE বাটনে ক্লিক করে পরের ধাপে যান।

➤ এ ধাপে যাত্রীর তথ্য দিতে হবে। যতগুলো সিট বুক করেছেন, তার যাত্রীদের নাম ও শিশু বা বয়স্ক কি না তা সিলেক্ট করতে হবে। ৩-১২ বছর বয়সী শিশু থাকলে Passanger Type Child সিলেক্ট করুন। Child সিলেক্ট করলে তার ভাড়া স্বয়ংক্রিয়ভাবে সমন্বয় হবে বা কমে যাবে।

➤ সবশেষে টিকিটের মোট ভাড়ার পরিমাণ, ভ্যাট, ব্যাংক চার্জ ও মোট খরচের পরিমাণ দেখানো হবে। টিকিটের মূল্য পরিশোধ করতে বিকাশ অথবা ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড অপশন বাছাই করুন। এরপর Confirm Purchase বাটনে ক্লিক করে পেমেন্ট সম্পন্ন করুন।

সফলভাবে পেমেন্ট করার সাথে সাথেই Railway E Ticket System থেকে ই-টিকিট ইস্যু করা হবে। টিকিটটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার ব্রাউজার থেকে ডাউনলোড হয়ে যাবে। আপনার প্রোফাইলের Purchase History থেকেও টিকিট ডাউনলোড করতে পারেন। তা ছাড়া টিকিটের একটি কপি আপনার ই-মেইলেও পাঠানো হবে। পরে টিকিটটি এ-ফোর সাইজের কাগজে প্রিন্ট করে নিন।

মোবাইলে ট্রেনের টিকিট বুকিং করার জন্য আপনার মোবাইলের Google Chrome ওপেন করুন এবং eticket.railway.gov.bd সাইটে ভিজিট করে উপরের দেখানো পদ্ধতি একইভাবে টিকিট কিনুন।

ট্রেনের টিকিট ফেরত দেওয়ার নিয়ম
অনেকেই ট্রেনের টিকিট ৪-৫ দিন আগে কিনে রাখেন। কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত সমস্যার কারণে ভ্রমণ বাতিল হতেই পারে। বাংলাদেশ রেলওয়ে টিকিট ফেরত দেওয়ার জন্য অবশ্যই আপনার স্টেশনের কাউন্টারে যেতে হবে। টিকিট ফেরত দেওয়ার ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট চার্জ ধার্য করা হবে। অনলাইন ক্রয়ের জন্য সার্ভিস চার্জ অফেরতযোগ্য।

সূত্রঃ জাগোনিউজ২৪


About the Author

RailNewsBD
রেল নিউজ বিডি (Rail News BD) বাংলাদেশের রেলের উপর একটি তথ্য ও সংবাদ ভিত্তিক ওয়েব পোর্টাল।