চিলাহাটি থেকে হলদিবাড়ি পর্যন্ত রেললাইন হচ্ছে

চিলাহাটি থেকে হলদিবাড়ি পর্যন্ত রেললাইন হচ্ছে

মো. আমিরুজ্জামান:
ভারত-বাংলাদেশ ট্রেন চলাচলের জন্য চিলাহাটি-চিলাহাটি বর্ডার রেলপথ নির্মাণের কাজ শুরু হচ্ছে। বাংলাদেশ অংশে প্রায় সাড়ে নয় কিলোমিটার রেলপথ নির্মাণ সম্পন্ন হলে শুরু হবে ভারত-বাংলাদেশ ট্রেন চলাচল। ১৯৬৫ সালে ইন্দো-পাকিস্তান যুদ্ধের পর ঐ রেলপথটি বন্ধ হয়ে যায়। রেলওয়ে সূত্র জানায়, ভারতের কোচবিহার জেলার হলদিবাড়ি থেকে চিলাহাটি স্টেশন পর্যন্ত প্রায় ১৩ কিলোমিটার রেলপথ ইতিপূর্বে চালু ছিল। ঐ রেলপথ দিয়ে ভারতীয় দার্জিলিং মেইল গোয়ালন্দ এক্সপ্রেস ট্রেনগুলো চলাচল করতো। কিন্তু ১৯৬৫ সালে ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধ বাধলে ঐ রেলপথ অচল করে দেওয়া হয়। ফলে স্থায়ীভাবে বন্ধ হয়ে যায় ঐ রেলপথ।

সূত্রমতে, বাংলাদেশ সরকার চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথটি চালুসহ নীলফামারীর ডোমার উপজেলার চিলাহাটিতে স্থলবন্দর চালুর উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। কাস্টমস অফিস, ইমিগ্রেশন, রেস্ট হাউস নির্মাণসহ যাবতীয় প্রকল্পও হাতে নেওয়া হয়েছে। যা বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ বাস্তবায়ন করছে। চিলাহাটি স্থলবন্দর বাস্তবায়নে এরই মধ্যে গেজেট প্রকাশ করেছে সরকার।

একই সূত্র জানায়, ভারতের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশ রেলওয়ে চিলাহাটি থেকে চিলাহাটি বর্ডার (সীমান্ত) পর্যন্ত ৬ দশমিক ৫ কিলোমিটার রেলপথ নির্মাণের জরিপ শুরু করেছে চলতি আগস্ট মাসে। আগামী ২৯ আগস্টে এ কাজ সম্পন্ন হবে। ২ দশমিক ৭১ কিলোমিটার লুপ লাইনসহ ৯ দশমিক ৩৬ কিলোমিটার রেলপথ নির্মাণ হবে বাংলাদেশ অংশে। অপরদিকে হলদিবাড়ি থেকে হলদিবাড়ি বর্ডার পর্যন্ত ৬ দশমিক ৫ কিলোমিটার রেলপথ স্থাপনের কাজ এরই মধ্যে শেষ করেছে ভারতীয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। সরেজমিনে দেখা যায়, রেলপথের উভয় পাশের অবৈধ স্থাপনাগুলো সরিয়ে নিচ্ছেন এলাকাবাসী। এরই মধ্যে শতাধিক স্থাপনা সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

প্রকল্প এলাকায় কর্মরত রেলওয়ের সৈয়দপুর বিভাগের পূর্ত বিভাগের ঊর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী তহিদুল ইসলাম বলেন, রেলপথ নির্মাণের জরিপ কাজ শেষ পর্যায়ে। আশা করছি আগামী সেপ্টেম্বর মাস থেকে রেলপথ স্থাপনের কাজ শুরু হবে। ফলে এখন চলছে বেইজ কম্পাকশন টেস্ট (মাটি নিরীক্ষা)। ভারী যন্ত্রপাতিও এসে পৌঁছেছে। এ কাজে বরাদ্দ মিলেছে প্রায় ৬৯ কোটি টাকা। ম্যাক্স নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজটি করছে।

রেলওয়ের বিভাগীয় ব্যবস্থাপক ও চিলাহাটি-চিলাহাটি বর্ডার রেলপথ স্থাপন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক আব্দুর রহীম জানান, রেলপথ স্থাপন প্রকল্পটি আগামী ২০২০ সালের জুন মাসের মধ্যেই শেষ হবে। এর ফলে ভারত-বাংলাদেশ ট্রেন চলাচল পুনঃস্থাপন হবে।

সুত্র:ইত্তেফাক, ২৭ আগস্ট, ২০১৯


About the Author

RailNewsBD
রেল নিউজ বিডি (Rail News BD) বাংলাদেশের রেলের উপর একটি তথ্য ও সংবাদ ভিত্তিক ওয়েব পোর্টাল।