বন্ধ হয়ে যাবে নারায়ণগঞ্জ স্টেশন: চাষাঢ়ায় রেলস্টেশন স্থানান্তরে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের চিঠি

বন্ধ হয়ে যাবে নারায়ণগঞ্জ স্টেশন: চাষাঢ়ায় রেলস্টেশন স্থানান্তরে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের চিঠি

ইসমাইল আলী:
ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে প্রতিদিন ১৬ জোড়া ট্রেন যাওয়া-আসা করে। আর প্রতিদিন এ রেলপথে যাতায়াত করে প্রায় ২৪ হাজার যাত্রী। এতে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে সড়কপথে চাপ অনেক কমে গেছে। তবে এ রুটে ট্রেনসেবাকে সংকুচিত করার চেষ্টা চলছে। এজন্য নারায়ণগঞ্জের পরিবর্তে চাষাঢ়ায় রেলস্টেশন স্থানান্তরের জন্য চিঠি দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মাঠ প্রশাসন সংযোগ শাখা। রেলপথ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো এ চিঠিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে অনুরোধ করা হয়।

যদিও ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ বিদ্যমান রেলপথকে ডুয়েলগেজ ডাবল লাইন উন্নীত করার জন্য গত মাসে চুক্তি সই করা হয়েছে। এতে ৩৭৮ কোটি টাকা ব্যয় করা হচ্ছে।

তথ্যমতে, নারায়ণগঞ্জ স্টেশনটি স্থানান্তরে সম্প্রতি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে চিঠি দেয় জেলা প্রশাসক। এতে চাষাঢ়া থেকে বিদ্যমান রেললাইনের স্থলে সড়কপথ নির্মাণের সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়া বিদ্যমান নারায়ণগঞ্জ রেলস্টেশনটির স্থানে বহুতল বাণিজ্যিক ভবন নির্মাণের অনুরোধ জানানো হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে রেলপথ মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

এদিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে পাঠানো চিঠির অনুলিপি সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব, ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার ও নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসককে দেওয়া হয়।

এতে বলা হয়, ‘নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে একটি স্মারক পাঠানো হয়েছে। এতে উল্লেখ করা হয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলার চাষাঢ়া থেকে নারায়ণগঞ্জ রেলস্টেশন পর্যন্ত চারটি রেলক্রসিং রয়েছে। ট্রেন চলাচলের জন্য চাষাঢ়া থেকে নারায়ণগঞ্জ রেলস্টেশন পর্যন্ত দিনে ৩২ বার রেলক্রসিং বন্ধ করার প্রয়োজন পড়ে। ফলে সড়কপথে যান চলাচলের গতিপ্রবাহ বিঘিœত হয়ে প্রতিনিয়ত তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। নারায়ণগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন চাষাঢ়ায় স্থানান্তর এবং চাষাঢ়া থেকে নারায়ণগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত রেলপথের স্থলে সড়কপথ নির্মাণ হলে শহরের যানজট হ্রাস পাবে মর্মে উল্লেখ করা হয়েছে। বিদ্যমান রেলস্টেশনের স্থানে বহুতল বাণিজ্যিক ভবন নির্মাণেরও অনুরোধ জানানো হয়েছে।’

চিঠিতে আরও বলা হয়, পরীক্ষা-নিরীক্ষাক্রমে উল্লিখিত বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

জানতে চাইলে রেলপথ সচিব মো. মোফাজ্জেল হোসেন শেয়ার বিজকে বলেন, সারা দুনিয়াতেই বড় শহরগুলোর প্রাণকেন্দ্রে রেলস্টেশন থাকে। বড় শহরের কেন্দ্রে যাত্রীদের আনা-নেওয়ার জন্য ট্রেনই নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এ দেশেও ঢাকা-চট্টগ্রামে একই চিত্র দেখা যায়। নারায়ণগঞ্জ শহরও এর ব্যতিক্রম নয়। এছাড়া নারায়ণগঞ্জের ঐতিহ্য রক্ষার্থে শহরটির নাগরিক কমিটি আন্দোলন করে আসছে, যার মধ্যে রেলস্টেশনও আছে।

তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জ স্টেশনটি স্থানান্তরে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। বিষয়টি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে মতামত দেওয়ার জন্য রেলওয়ে মহাপরিচালকের কাছে চিঠিটি পাঠানো হয়েছে। রেলওয়ের মতামতের ভিত্তিতে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

সূত্র জানায়, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রেলপথ রক্ষা ও ডাবল লাইন নির্মাণে বহুদিন ধরে আন্দোলন করে আসছে ওয়ার্ক ফর বেটার বাংলাদেশ (ডব্লিউবিবি) ট্রাস্ট। সংস্থাটির এক গবেষণায় দেখানো হয়, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে ট্রেনে প্রতি ট্রিপে গড়ে দেড় হাজার যাত্রী চলাচল করে। এতে ডিজেল লাগে মাত্র ২৫ লিটার। দেড় হাজার যাত্রী বাসে পরিবহন করতে ৩৮টি বাস লাগবে। আর এ বাসগুলোতে এক ট্রিপে ডিজেল লাগবে ২২৮ লিটার।

এতে আরও বলা হয়, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে ট্রেনে যাত্রীপ্রতি ডিজেল লাগে মাত্র দশমিক শূন্য দুই লিটার। আর বাসে যাত্রীপ্রতি ডিজেল লাগে মাত্র দশমিক ১৫ লিটার। অর্থাৎ ট্রেনের চেয়ে বাসে প্রায় সাড়ে সাতগুণ বেশি ডিজেল পোড়াতে হয়।

জানতে চাইলে ডব্লিউবিবি ট্রাস্টের প্রকল্প কর্মকর্তা আতিকুর রহমান বলেন, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে আংশিক পথে (৭ কিলোমিটার) ফ্লাইওভার নির্মাণে ব্যয় হয়েছে দুই হাজার ১০০ কোটি টাকা। আর ১৬ কিলোমিটার রেলপথ ডুয়েলগেজ ডাবল লাইন নির্মাণে ব্যয় হবে মাত্র ৩৭৮ কোটি টাকা। এ থেকেই বোঝা যায় রেলপথ নির্মাণ কতটা সাশ্রয়ী। আর ট্রেনে যাত্রী পরিবহন আরও সাশ্রয়ী। তাই নারায়ণগঞ্জ রেলস্টেশন বন্ধ করার চেষ্টা একধরনের ষড়যন্ত্র। এর সঙ্গে বাস মালিক ও স্থানীয় কিছু নেতা জড়িত থাকতে পারেন। বিষয়টি সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে তদন্ত করে দেখা উচিত।

তিনি আরও বলেন, এখন বন্দর ও নৌপথে আশপাশের জেলা থেকে আসা মানুষ সহজেই নারায়ণগঞ্জ থেকে ট্রেনে ঢাকায় আসতে পারে। এটিকে চাষাঢ়ায় স্থানান্তর করা হলে সেসব যাত্রীর দুর্ভোগ পোহাতে হবে। এছাড়া বর্তমান সরকার রেলপথ সম্প্রসারণকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। তাই কোনোভাবেই নারায়ণগঞ্জ স্টেশন বন্ধ করতে দেওয়া উচিত হবে না।

সুত্র:শেয়ার বিজ

About the Author

RailNewsBD
রেল নিউজ বিডি (Rail News BD) বাংলাদেশের রেলের উপর একটি তথ্য ও সংবাদ ভিত্তিক ওয়েব পোর্টাল।