রেলওয়েতে যুক্ত হচ্ছে অত্যাধুনিক বগি

রেলওয়েতে যুক্ত হচ্ছে অত্যাধুনিক বগি

জমির উদ্দিন: রেলওয়ের উন্নয়নে মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়েছে সরকার। ২০২০ সালের মধ্যে দেশে এই পরিবহন ব্যবস্থার চিত্র পুরোপুরি পাল্টে যাচ্ছে। ওই বছরের জুনের মধ্যেই ব্রডগেজ ও মিটারগেজ মিলিয়ে ২৫০টি বগি যুক্ত হচ্ছে, যা দিয়ে তৈরি করা যাবে ১৫টি নতুন ট্রেন।

প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, রেলে যুক্ত করার জন্য ৫০টি ব্রডগেজ ও ২০০টি মিটারগেজ বগি কেনা হচ্ছে। মিটারগেজ বগিতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৮০ কোটি টাকা। আর ব্রডগেজ বগি কেনার জন্য ব্যয় হবে ২১৩ কোটি টাকা। প্রতিটি বগির আমদানি মূল্য ৫ কোটি টাকা।

ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ট্রেন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান পিটি ইন্ডাস্ট্রি কেরেতা এপি (ইনকা) এসব বগি তৈরি করেছে। সেখান থেকে জাহাজে করে এগুলো দেশে আনা হবে। ইতোমধ্যে জানুয়ারিতে ১৫টি ব্রডগেজ বগি দেশে চলে এসেছে।

দ্বিতীয় চালানে ১৮টি ব্রডগেজ বগি মার্চের ১০ তারিখে, পরে এপ্রিলের শেষের দিকে ও মে মাসের প্রথম দিকে বাকি ১৮টি ব্রডগেজ বগি আসবে। নীলফামারীর সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায় রেখে বগিগুলোতে র‌্যাক তৈরি করে ট্রায়াল রান করা হবে। যে ৫০টি ব্রডগেজ বগি আসবে সেগুলো দিয়ে তিনটি নতুন ট্রেন তৈরি করা যাবে।

এদিকে জুন থেকে ৯টি শিপমেন্টে ২০২০ সালের জুন পর্যন্ত সময়কালে আসবে ২০০টি মিটারগেজ বগি। এই বগিগুলোও ট্রায়াল রানের জন্য রাখা হবে সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায়। ২০০টি মিটারগেজ দিয়ে ১২টি নতুন ট্রেন তৈরি করা যাবে।

রেলওয়ের প্রধান যান্ত্রিক প্রকৌশলী (সিএমই) হারুনুর রশীদ বাংলানিউজকে বলেন, ব্রডগেজ ও মিটারগেজ সহ মোট ২৫০টি বগি ২০২০ সালের জুনের ভেতর আমরা পেয়ে যাবো। যা দিয়ে প্রায় ১৫টি নতুন ট্রেন তৈরি করা যাবে। এসব ট্রেন যুক্ত হলে মানুষের চাপ অর্ধেকে নেমে আসবে।

ঘণ্টায় ১৪০ কিলোমিটার গতিতে ছুটবে ব্রডগেজ ট্রেন:

৫০টি ব্রডগেজ বগি থেকে নতুন যে তিনটি ট্রেন তৈরি করা হবে সেগুলো ঘণ্টায় ১৪০ কিলোমিটার গতিতে ছুটবে। প্রতি মিনিটে চলবে প্রায় আড়াই কিলোমিটার।

রেলওয়ের প্রধান যান্ত্রিক প্রকৌশলী (সিএমই) হারুনুর রশীদ বাংলানিউজকে বলেন, বগিগুলোতে বায়ো-টয়লেট যুক্ত থাকছে। প্লেনের মতো বায়ো-টয়লেট পদ্ধতি থাকায় রেললাইনে কোনো মলমূত্র পড়বে না। ফলে পরিবেশ যেমন দূষণ হবে না তেমনি ট্রেনগুলোও ব্যাকটেরিয়ামুক্ত ও দূষণমুক্ত থাকবে।

তিনি বলেন, এসব বগি সহজে নষ্ট হবে না, খুবই উন্নত। প্রতিবন্ধীদের জন্য স্পেশাল চেয়ারের ব্যবস্থা থাকবে। সামনে টেলিভিশনের পর্দা থাকবে, ট্রেন কোথায় থামছে-সেটি স্ক্রিনে দেখা যাবে। এর আগে দেশে এমন অত্যাধুনিক বগি আনা হয়নি।

সুত্র:বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৯

About the Author

RailNewsBD
রেল নিউজ বিডি (Rail News BD) বাংলাদেশের রেলের উপর একটি তথ্য ও সংবাদ ভিত্তিক ওয়েব পোর্টাল।