বেনাপোলে রেলে পণ্য আনতে আগ্রহ বাড়ছে আমদানিকারকদের

বেনাপোলে রেলে পণ্য আনতে আগ্রহ বাড়ছে আমদানিকারকদের

মহসিনমিলন: বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে রেলপথে চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে ২৬১ কোটি টাকার রাজস্ব আয় করেছে সরকার। অন্যদিকে রেল কর্তৃপক্ষ ভাড়া বাবদ দুই কোটি ৮৫ লাখ ৫৪ হাজার টাকা আয় করেছে। বেলপথে এ সময় পণ্য আমদানি হয়েছে ৮২২ কোটি টাকার, যার পরিমাণ প্রায় দুই লাখ ৩৯ হাজার ৪৫৪ মেট্রিক টন। তবে চলতি অর্থবছরের শেষে এ পথে দিগুণ পরিমাণ রাজস্ব ও ভাড়া আদায় হবে বলে জানান বেনাপোল রেলওয়ে স্টেশনমাস্টার শাহিদুজ্জামান।

বেনাপোল রেলস্টেশন সূত্রে জানা যায়, বেনাপোল স্থলবন্দর রেলপথে চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ছয় মাসে ভারত থেকে পণ্য আমদানি হয়েছে দুই লাখ ৩৯ হাজার ৪৫৪.৩ মেট্রিক টন। এসব পণ্য থেকে সরকারের রাজস্ব আদায় হয়েছে ১১ কোটি ৮৫ লাখ ৫৪ হাজার টাকা। এদিকে গত বছরের ২০১৯-২০ অর্থবছরে এ পথে ভারত থেকে পণ্য আমদানি হয়েছে এক লাখ ৮৪ হাজার ৭৩.৯ মেট্রিক টন, যা থেকে সরকারের রাজস্ব আদায় হয়েছে আট কোটি ৮৮ লাখ ২৬ হাজার টাকা।

বেনাপোল রেলওয়ে স্টেশনমাস্টার শাহিদুজ্জামান জানান, বর্তমানে বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারত থেকে স্থলপথের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রেলপথে পণ্য আমদানি হচ্ছে। তবে বন্দরের রেল ইয়ার্ড না থাকায় পণ্য আমদানি কিছুটা ব্যাহত হচ্ছে। অবশ্য ইতোমধ্যে বন্দরে দুটি রেল ইয়ার্ড নির্মাণের ভিত্তি স্থাপনা করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আশা করি খুব শিগগিরই এ সমস্যার সমাধান হবে। আগে এ পথে শুধু পাথর ও সিমেন্ট তৈরির কাঁচামাল আমদানি হতো। বর্তমানে এপথে ছোট পিকআপ, ট্রাক্টর, পাথর, সিমেন্ট তৈরির কাঁচামাল, ভুট্টা, গম, শুকনা মরিচ, জিরা, আদাসহ বিভিন্ন ধরনের পণ্য আমদানি হচ্ছে। এভাবে যদি স্থলপথের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রেলপথেও পণ্য আমদানি হয়, তাহলে এ বছর রেল খাতে সরকারের রাজস্ব দিগুণ আদায় হবে বলে জানান তিনি।

বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশন সভাপতি মফিজুর রহমান সজন বলেন, ‘আমাদের দেশের সব থেকে বড় বাণিজ্যিক গন্তব্য ভারত। হঠাৎ করে মহামারি করোনাভাইরাস শুরু হলে এর সংক্রমণ রোধে পেট্রাপোল-বেনাপোল বন্দরের স্থলপথে পণ্য আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ করে দেয় ভারত সরকার। এতে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য স্থবির হয়ে পড়ে। পরবর্তীকালে আমদানি-রপ্তানি সচল করতে রেলপথে সব ধরনের পণ্য আমদানি চালু করা হয়। তারই ধারাবাহিকতায় বর্তমানে রেলপথে সব ধরনের পণ্য আমদানি সচল রয়েছে। এতে গত বছরের তুলনায় এ বছর রেল খাতে সরকারের দিগুণ রাজস্ব আদায় হবে বলে তিনি জানান।

বেনাপোল কাস্টমস হাউসের ডেপুটি কমিশনার এসএম শামীমুর রহমান বলেন, ‘রেলপথে বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানিকারকরা পণ্য আমদানি করতে সবচেয়ে বেশি আগ্রহী। গত ছয় মাসে সরকার ২৬১ কোটি টাকার রাজস্ব আয় করেছে।’ তবে চলতি অর্থবছরে এটি বেড়ে দ্বিগুণ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি জানান।


সূত্র:শেয়ার বিজ, জানুয়ারী ২৫, ২০২১

About the Author

RailNewsBD
রেল নিউজ বিডি (Rail News BD) বাংলাদেশের রেলের উপর একটি তথ্য ও সংবাদ ভিত্তিক ওয়েব পোর্টাল।