সৈয়দপুরে রেলের ১৯ একর জমি দখলমুক্ত

সৈয়দপুরে রেলের ১৯ একর জমি দখলমুক্ত

নিউজ ডেস্ক: নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলায় উচ্ছেদ অভিযানে রেলওয়ের ১৯ একর জমি দখলমুক্ত করা হয়েছে।

গতকাল রোববার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত শহরের বিভিন্ন এলাকায় রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নুরুজ্জামানের নেতৃত্বে সৈয়দপুর রেলওয়ে ভূ-সম্পত্তি বিভাগ এ অভিযান পরিচালনা করে।

সকালে শহরের কাজিপাড়ায় অবৈধভাবে দখলকৃত রেলওয়ের কয়েক জলাশয় ও কৃষিজমি উদ্ধার করা হয়। পরে তা স্পট নিলামের মাধ্যমে বৈধভাবে লিজ দেয়া হয়। এতে প্রায় ১৯ একর ছয় শতাংশ জমি (জলাশয় ও কৃষিজমি) দখলমুক্ত করা হয়।

পরে দুপুরে শহরের কলাহাটি রোডের পাশে রেলওয়ের জমিতে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা দুটি দোকান ও একটি বাড়িও নিলামে তোলা হয়। নিলামের মাধ্যমে বরাদ্দ দেয়া হয়। অবৈধ দখলদারদের কাছ থেকে এ সময় জরিমানা ও নতুন করে লিজ দেয়ার মাধ্যমে প্রায় ৩৪ লাখ পাঁচ হাজার টাকা রাজস্ব আদায় করা হয়।

এছাড়া নয়াবাজার ভাগার এলাকায় রেলওয়ের বিশাল জায়গাজুড়ে গড়ে তোলা সৈয়দপুর পৌরসভা ও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার যৌথ প্রকল্প কো-কম্পোস্ট প্লান্ট বন্ধ করে দিয়ে তা জব্দ করা হয়েছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে মন্ত্রণালয় থেকে বৈধ বরাদ্দ বা লিজ নেয়ার পর কাজ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ সময় এখানে কর্মরত সমাজকল্যাণ সংস্থার (এসকেএস) দুই সাব-ইঞ্জিনিয়ারকে আটক করা হয়। পরে পৌর পরিষদের কাউন্সিলররা তাদের অবিলম্বে রেলওয়ের কাছ থেকে বৈধ উপায়ে লিজ নিতে রাজি করালে এক ঘণ্টার কারাদণ্ড শেষে তাদের মুক্তি দেয়া হয়।

বিকালে শহরের শহীদ ডা. জিকরুল হক রোডে সৈয়দপুর প্রেস ক্লাবের পাশে অবৈধভাবে নির্মাণাধীন ছয় তলাবিশিষ্ট ভবনের অবকাঠামো জব্দ করে তা ছয় লাখ টাকা নিলামে বিক্রি করা হয়। এছাড়া জায়গাটুকু নিজেদের আয়ত্তে নিয়ে ভবিষ্যতে বৈধভাবে বরাদ্দের সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নুরুজ্জামান বলেন, সরকার রেলওয়ের ব্যাপারে খুবই আন্তরিক। তাই নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, দেশের যেখানে যত রেলওয়ের সম্পত্তি অবৈধ দখলে আছে, তা দখলমুক্ত করে রাজস্ব আয়ের খাতে পরিণত করতে হবে। এ নির্দেশনার আলোকে বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার সৈয়দপুরে অভিযান চালানো হলো।

তিনি আরও বলেন, সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে অবশ্যই যে কোনো ধরনের ও যে কোনো

ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের দখলকৃত রেলওয়ের জমি উদ্ধার করা হবে।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন পার্বতীপুর রেলওয়ে

ভূ-সম্পত্তি বিভাগের কানুনগো মো. জিয়াউর রহমান, সৈয়দপুর সহকারী প্রকৌশলী মো. আহসান উদ্দিন, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. শরিফুল ইসলাম, সৈয়দপুর রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর চিফ ইন্সপেক্টর মো. বেনজুর রহমানসহ নিরাপত্তা বাহিনী ও পুলিশ সদস্যরা।

সূত্র:শেয়ার বিজ, মার্চ ২২, ২০২১ 


About the Author

RailNewsBD
রেল নিউজ বিডি (Rail News BD) বাংলাদেশের রেলের উপর একটি তথ্য ও সংবাদ ভিত্তিক ওয়েব পোর্টাল।