শিরোনাম

পশ্চিমাঞ্চলে ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয়

পশ্চিমাঞ্চলে ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয়

 আনিসুজ্জামান :

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের ঢাকা-রাজশাহী রুটের ট্রেনগুলো আবারও ভয়াবহ শিডিউল বিপর্যয়ের কবলে পড়েছে। এ রুটে চলমান চার নামে তিনটি ট্রেনের সবগুলো নির্ধারিত সময়ের চেয়ে দুই থেকে পাঁচ ঘণ্টা পর্যন্ত বিলম্বে ছেড়ে গন্তব্যে পৌঁছাচ্ছে। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছে যাত্রীরা।

রেলওয়ের সূত্রগুলো বলছে, বৃহস্পতিবার রাতে রাজশাহী থেকে ঢাকাগামী ‘ধূমকেতু এক্সপ্রেস’ ট্রেনের নির্ধারিত সময় ছিল রাত ১১টা ২০ মিনিট। কিন্তু ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশে পাঁচ ঘণ্টা বিলম্বে রাজশাহী স্টেশন ছেড়ে যায় বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৪টা ১০ মিনিটে। এদিকে শুক্রবার সকাল ৭টা ৪০ মিনিটের ঢাকাগামী ‘সিল্কসিটি এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি প্রায় দুই ঘণ্টা বিলম্বে সকাল ৯টা ৩৫ মিনিটে রাজশাহী স্টেশন ছেড়ে যায়। অন্যদিকে শুক্রবার বিকাল ৪টার ঢাকাগামী ‘পদ্মা এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি নির্ধারিত সময়ে সিরাজগঞ্জে অবস্থান করছিল। ট্রেনটি তিন ঘণ্টা বিলম্বে রাজশাহী পৌঁছায়।

যাত্রী ও রেলওয়ে সূত্র জানায়, শুধু ধূমকেতু, সিল্কসিটি ও পদ্মা এক্সপ্রেস ট্রেনই নয়, রাজশাহী-ঢাকা রুটের সকল ট্রেনই দুই-পাঁচ ঘণ্টা বিলম্বে চলাচল করছে। এছাড়া সিডিউল বিপর্যয়ের কবলে পড়েছে রাজশাহী-ঢাকা রুটে চলাচলকারী বিরতিহীন ‘বনলতা এক্সপ্রেস’ ট্রেনও। এ ট্রেনটিও দুই-তিন ঘণ্টা বিলম্বে গন্তব্যে পৌঁছাচ্ছে। তবে রাজশাহী থেকে খুলনাগামী কপোতাক্ষ ও সাগরদাঁড়ি এক্সপ্রেস, চিলাহাটিগামী বরেন্দ্র ও তিতুমীর এক্সপ্রেস, গোয়ালঘাটগামী মধুমতি এক্সপ্রেস নির্ধারিত সময়ে রাজশাহী স্টেশন ছাড়লেও কোনো ট্রেনই নির্ধারিত সময়ে গন্তব্যের স্টেশনে পৌঁছাচ্ছে না। এমনকি রাজশাহীতে নির্ধারিত সময়ে ফিরে আসতে পারছে না।

রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ বলছে, সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনার পর থেকেই ট্রেনের সিডিউল বিপর্যয় শুরু হয়েছে। তবে ঢাকাগামী সকল ট্রেনের যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ট্রেনের শুধু যাত্রা বিলম্ব নয়, ট্রেনটি ঢাকায়ও নির্ধারিত সময়ে পৌঁছাতে পারছে না। সাধারণত ছয় ঘণ্টায় রাজশাহী থেকে ঢাকায় এবং ঢাকা থেকে রাজশাহীতে ট্রেন পৌঁছানোর কথা। কিন্তু সিরাজগঞ্জের দুর্ঘটনার পর ঢাকাগামী ট্রেনগুলো সময় নিচ্ছে আট থেকে ৯ ঘণ্টা। বিরতিহীন বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনও চার-পাঁচ জায়গায় স্টপেজ দিয়ে গড়ে ছয় থেকে আট ঘণ্টা সময় নিচ্ছে বলে যাত্রীরা অভিযোগ করেছেন।

এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার রাতের ধূমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনের পরিচালক কাজী শাহনেওয়াজ জানান, সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনার পর থেকে ট্রেনের গতি কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন লাইনে ট্রেনের গতি বিভিন্ন রকম করা হয়েছে। সর্বোচ্চ গতি নির্ধারণ করা হয়েছে ৬০ কিলোমিটার। অথচ আগে প্রায় ৮০ কিলোমিটার গতিতে ট্রেনগুলো চলাচল করত।

এ কারণে ট্রেনগুলো নির্ধারিত সময়ে পৌঁছাতে পারছে না, কিছুটা বিলম্ব হচ্ছে। সিডিউল বিপর্যয় বিষয়ে জানতে চাইলে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক মিহির কান্তি গুহ বলেন, ‘উল্লাপাড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটেছিল তারপর থেকেই সব ট্রেনের কিছুটা সিডিউল বিপর্যয় ঘটেছে। প্রথমে এই সিডিউল বিপর্যয় এক থেকে দেড় ঘণ্টা পর্যন্ত ছিল। ধীরে ধীরে এই সিডিউল বিপর্যয় খারাপ অবস্থায় গেছে। আশা করছি এক সপ্তাহের মধ্যে ট্রেনগুলো স্বাভাবিক সিডিউলে চলাচল করতে পারবে।’

সুত্র:ইত্তেফাক,  ২৩ নভেম্বর, ২০১৯


About the Author

RailNewsBD
রেল নিউজ বিডি (Rail News BD) বাংলাদেশের রেলের উপর একটি তথ্য ও সংবাদ ভিত্তিক ওয়েব পোর্টাল।